Trending

Tuesday, 7 May 2019

মুক্তি পেল প্রলয় ও স্যমন্তকের নতুন গান 'রাজা'

  
'রাজা' গানটা আসলে একটা রূপকথার গল্প! এর সাথে বাস্তবের কোনও মিল আছে কিনা, থাকলেও তা নেহাত কাকতলীয় কিনা, সেটা শ্রোতারা বলতে পারবেন।
   যে রাজার কথা হচ্ছে, সে রাজা উন্নাসিক, উন্মাদ এবং নিষ্ঠুর। সিংহাসনে উঠে অগাধ ধনসম্পত্তি লাভ করেন। সে পয়সায় সৌধ হয়, প্রাসাদ হয়, মিনার হয়, মূর্তি হয়...ওদিকে সে অভাগা দেশে, অভাগা রাজ্যে, মানুষের পেটের ভাতের জোগান হয়না, মাথার উপর ছাদের বন্দোবস্ত হয়না, কর্মসংস্থান হয়না। তারা তাই বিদ্রোহ করে যান, যে যার ক্ষমতায়, আর সে রাজা...রাজা পেয়াদা নিয়োগ করে কড়া হাতে সেসব বিদ্রোহীর টুঁটি টিপে ধরেন। ধরে ধরে সব বিদ্রোহীকে শূলে চড়ান। দেশ হয় শশ্মানপুরী। সাধারণ মানুষ ভয়ে মুখে কুলুপ আঁটেন, পাছে পেয়াদা পাকড়াও করে।
   সাধারণ মানুষ অনেক কথা বলতে পারেননা, পারলেও বলে সাহস পাননা। তাদের ভাষা যোগান কবিরা, শিল্পীরা। এটাই হয়। এটাই চিরকাল হয়েছে। তাঁরা মানুষের কথা লেখেন, তাদের দুর্দশার কথা লেখেন, লেখেন রাজার বিরুদ্ধে, রাষ্ট্রব্যবস্থার বিরুদ্ধে। খবর পৌঁছয় রাজার কাছে। কবিদের আস্ত রাখা যাবেনা। এগুলো হাড় বজ্জাত একেকটা। যেমন হুকুম তেমন কাজ। রাজবিরোধী লেখা বাজেয়াপ্ত হয়, বন্ধ হয় প্রদর্শনী, লাগে দেশদ্রোহীর তকমা। কলম ভাঙা হয়, বাদ যায় জবান!
   কিন্তু কবিদের এভাবে মারা যায়নি। কারণ, কবি মরলেও কাব্য মরেনা। শিল্পী মরলেও, শিল্প মরেনা। রাজা কবিদের মারতে পারেন, কিন্তু কাব্যাচেতনা....সে তো অবিনশ্বর। তাই নতুন কবিরা আসে, আসে পরবর্তী প্রজন্ম। ভীত রাজা এদেরও মারার চেষ্টা করেন, কিন্তু ফল হয়না। কারণ, এরা 'রক্তবীজের জাত'...একজনকে মারলে আরো জন্মায়, শত সহস্র, অগুনতি!
   গানটি ইউটিউবে মুক্তি পেল এই মাসের 5 তারিখ। প্রলয়ের কথায় সুরে গানটিতে কণ্ঠ প্রদান ও যন্ত্রায়োজন করেছেন স্যমন্তক। বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে এই রাজার গল্প কতটা প্রাসঙ্গিক, সেটা বিচার করবেন শ্রোতারাই।
~প্রলয়

No comments:

Post a comment