Trending

Saturday, 4 May 2019

লাল দীঘির ইতিহাস!




লাল দীঘি কলকাতা বাসীর অতি পরিচিত এই জলাধার মহাকরণের সামনের অংশ অলঙ্কৃত করে আছে, এই জলাধার যার নীচে গড়ে উঠেছে দীর্ঘ ১,১৫,০০০ বর্গফুট বিশিষ্ট কলকাতার সবথেকে বড়ো কার পার্কিং। বিনয়-বাদল-দীনেশের ইতিহাস বহন করা লালদীঘি তার সম্পর্কে কতোটুকু জানি আমরা? ঐতিহাসিক দের মতে শহর কলকাতা থেকেও অনেক পুরানো এই লালদীঘি অর্থাৎ জব চার্ণকের আসার অনেক আগে থেকেই অস্তিত্ব ছিলো এই লালদীঘির।

ডিহি কলকাতার ইতিহাস ঘাটলে যানা যায় যে এই অঞ্চলে ছিলো সাবর্ণ রায় চৌধুরী দের অংশ এখানে তাদের একটি কাছারি বাড়ি ও গৃহদেবতা শ্যামরায়ের মন্দির ছিল। ব্রিটিশ কোম্পানি এই জায়গা প্রথমে ভাড়া ও পরে কিনে নিয়েছিলো। তবে লাল দীঘি র অস্তিত্ব তার ও বহুকাল আগে থেকে ছিল। এই রকম নাম করনের পিছনে অনেকগুলি ছোট ছোট গল্প আছে প্রথমটিতে বলা আছে সাবর্ণ দের ঠাকুরবাড়ি তে যখন দোল খেলা হতো এবং দোলের পর সবাই দীঘির জলে স্নান করতো যার ফলে জল লাল বর্ণ ধারন করতো সেই থেকে নাম হয় লালদীঘি। অপর কাহিনী তে বলা আছে যে এই দীঘি খনন করেন জনৈক লাল চাঁদ রায় তার নামানুসারে নাম হয় লালদীঘি। আবার অনেকে মনে করেন এখানে অবস্থিত ব্রিটিশ দের পুরোনো কেল্লার লাল রঙের প্রতিফলন দীঘির জলে পড়তো এই থেকে নাম হয় লালদীঘি।

১৭০৯ সালে প্রথম দীঘির জল পরিস্কার করে পানীয়যোগ্য করে তোলা হয়। যদিও এরপর ওয়ারেন হেস্টিংস এই অঞ্চলে বসবাস কালে আবারো দীঘি সংস্কার করেন যার ফলে এর দৈর্ঘ্য কমে যায় তিনিই প্রথম এই দীঘি সিমেন্ট দিয়ে বাধিয়ে চারপাশে রেলিং বসিয়ে দেন। ১৭৫৬ সালে নবাব সিরাজদ্দৌল্লা কলকাতা আক্রমণ করেন ও ব্রিটিশ দের সাথে তার "লালদীঘির যুদ্ধ" সংগঠিত হয় যাতে ব্রিটিশ বাহিনী হেরে যায় ও নবাব কলকাতা দখল করে নাম আলিনগর রেখে দেন যদিও এরপর ১৯৫৭ সালে পলাশীর যুদ্ধে সিরাজের হারের সাথে সাথে ব্রিটিশরা কলকাতা পুনঃরুদ্ধার করে।

এরপর লালদীঘির সামনে তৈরি হয় ব্রিটিশ কলকাতার মুখ্য কার্যালয় মহাকরণ ও বর্তমান রুপ পায় তৎসংলগ্ন অঞ্চল। বহু রক্তক্ষয়ী ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে আজও শহরের বুকে দাঁড়িয়ে আছে লাল-দীঘি যা শহরের প্রাচীনতম বাসিন্দা দের মধ্যে অন্যতম। এই দীঘির জল আজও অনেক গল্প শোনায় সেইযুগের কলকাতা সেইযুগের মহানগর এর।

No comments:

Post a comment