Trending

Thursday, 16 May 2019

কানহা জঙ্গল ভ্রমণ




মানুষের সমাজের বেশ কিছু নিয়ম কানুন আছে। কিন্তু জঙ্গলে? সেখানেও আছে নাকি মানুষের সমাজ এর মত ছকে বাঁধা জীবনযাপন? সেটা জানতে হলে ঘরে বসে থাকলে চলবে না। চলে যেতে হবে জঙ্গল ভ্রমণে। আজ এমনই একটি জঙ্গল ভ্রমণের স্থান আপনাদের সামনে তুলে ধরবো।



মধ্যপ্রদেশের কানহা। জঙ্গল ভ্রমণের জন্য একটি প্রসিদ্ধ স্থান ‌। প্রতিবছর দূর-দূরান্ত থেকে অনেক মানুষ আসেন বন্য পশুদের খুব কাছ থেকে দেখতে। তবে জঙ্গলে প্রবেশ করার আগে কিছু নিয়ম কানুন মানতে হয় ‌। পারমিট বের করে নির্দিষ্ট গাইড এর সঙ্গে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত অবস্থায় জঙ্গল ভ্রমণে যাওয়া যায়। হাজার হোক বন্য জন্তুর এত আমাদের ঠিক অতিথির মত সৎকার নাও করতে পারে তাই আগেভাগে সতর্ক থাকাই ভালো। জঙ্গল ভ্রমণের সময় হল সকাল6টা থেকে 10:30 পর্যন্ত। জঙ্গল ভ্রমণে আপনি বাঘের দেখা পাবেন ই এমন গ্যারান্টি কেউ দিতে পারে না। কপাল ভালো থাকলে পেয়ে যেতে পারেন। তবে বাঘের দেখা না পেলেও বাঘের পায়ের ছাপ আপনি অবশ্যই দেখতে পাবে ন। তবে শুধু বাঘ কেন আরো অনেক জন্তু বিভিন্ন প্রজাতির পাখি র স্বাধীন সংসার এখানে আপনি চাক্ষুষ করতে পারবেন।




কানহা ন্যাশনাল পার্কে র কোর এরিয়া 917 কিলোমিটার আর বাফার এরিয়া 1134 কিলোমিটার। এখানে মোট চারটি কোর এরিয়া আছে ।সেগুলি হল কানহা, কিশলি, মুক্ষি, সারহি। এই অঞ্চলে তিনটি বাফার এরিয়া আছে ।সেগুলি হল কাটিয়া, খাপা এবং সিজুক। জঙ্গল টি মূলত শাল গাছে ঘেরা। এখানে প্রায় 300 প্রজাতির পাখি, 43 প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণী, 26 প্রজাতির সরীসৃপ এবং প্রায় 500 প্রজাতির পতঙ্গ দেখা যায় ‌। আর বন্য প্রাণীদের মধ্যে বাঘ,, চিতাবাঘ, হাতি, হরিণ, ভাল্লুক, সিংহ, পাইথন ইত্যাদির দেখা পাওয়া যায়।



মূলত টাইগার সাফারির জন্য বিখ্যাত কানহা জঙ্গল। এখানে সাফারি করার উপযুক্ত সময় হলো 15 অক্টোবর থেকে 30 শে জুন। তাহলে আর দেরি কিসের? জঙ্গলমহলের সদস্যদের একবার চাক্ষুষ দেখে ই আসুন।

No comments:

Post a comment