Trending

Friday, 31 May 2019

রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নরেন্দ্র মোদীর



শুরু হল নরেন্দ্র মোদীর দ্বিতীয় ইনিংস। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি ভবনে কয়েক হাজার অতিথির সামনে প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন তিনি। রাইসিনা হিলসে এদিন চাঁদের হাট। বিদেশি নেতা থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট ব্যাক্তিত্ব দের আমন্ত্রন জানানো হয়েছে। ঠিক সন্ধ্যা ৭টায় শপথ বাক্য পাঠ করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কবিন্দ।
বিমস্টেক লিডারদের মধ্যে এদিন উপস্থিত আছেন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মৈত্রিপালা সিরিসেনা, মায়ানমারের প্রেসিডেন্ট ইউ উইন ময়িন্ত, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি ও ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং। রাষ্ট্রপতি ভবনের ইতিহাসে এটাই সবথেকে বড় অনুষ্ঠান। অতিথিদের পরিবেশন করা হবে ‘হাই-টি’ আর নৈশভোজের আতিথ্য করবেন স্বয়ং রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।





রাষ্ট্রপতি ভবনে শুরু শপথগ্রহণ। উপস্থিত দেশি-বিদেশি অতিথিরা। বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা উপস্থিত রয়েছেন।মিলিয়ে রয়েছেন ৮ হাজার অতিথি। রাষ্ট্রপতি ভবনের ফোরকোর্টে  চলছে শপথগ্রহণ।ঠিক সন্ধ্যা ৭টায় শপথ বাক্য পাঠ করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কবিন্দ।
বিমস্টেক লিডারদের মধ্যে এদিন উপস্থিত আছেন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ, শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মৈত্রিপালা সিরিসেনা, মায়ানমারের প্রেসিডেন্ট ইউ উইন ময়িন্ত, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি ও ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং। রাষ্ট্রপতি ভবনের ইতিহাসে এটাই সবথেকে বড় অনুষ্ঠান। অতিথিদের পরিবেশন করা হবে ‘হাই-টি’ আর নৈশভোজের আতিথ্য করবেন স্বয়ং রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।২ জন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী পেল বাংলা। একজন আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় এবং রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী। দ্বিতীয় মন্ত্রী হিসেবে মোদী সরকারে জায়গা পেলেন রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী। তিনি ৩৩তম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন।

বত্রিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী কৈলাস চৌধুরী
একত্রিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী প্রতাপচন্দ্র সারঙ্গী
ত্রিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী রামেশ্বর তেলি
ঊনত্রিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী সোমপ্রকাশ
আঠাশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী রেণুকা সিং সুরিতা।
সাতাশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী বি মুরলিধরন
ছাব্বিশ  তম রাষ্ট্রমন্ত্রী রতনলাল কাটারিয়া
পঁচিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই
চব্বিশ তম রাষ্ট্রমন্ত্রী সুরেশচন্দ্র বাসাপ্পা
তেইশতম রাষ্ট্রমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর
বাইশতম রাষ্ট্রমন্ত্রী ধোত্রে সঞ্জয়
একুশতম রাষ্ট্রমন্ত্রী সঞ্জীব কুমার বালিয়ান।

বিংশতম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বাংলা থেকে প্রথম মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন। আসানসোলের সাংসদ বাবুল প্রথম মোদী সরকারেও মন্ত্রী ছিলেন।
উনিশতম রাষ্ট্রমন্ত্রী সাধ্বী নিরঞ্জন জ্যোতি।
অষ্টাদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন রামদাস আঠাওয়ালে।
সপ্তদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন পুরুষোত্তম রূপালা।
ষোড়শ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন জি কৃষ্ণ রেড্ডি।
পঞ্চদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে রাও সাহেব দাদারাও পাটিল দানবে।
চতুর্দশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন কৃষ্ণপাল গুজ্জর।
ত্রয়োদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ হলেন জেনারেল ভিকে সিং।
দ্বাদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ হলেন অর্জুন কুমার মেঘওয়াল।
একাদশ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন অশ্বিনীকুমার চৌবে।
দশম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ফগন সিং কুলস্তে।
এখনও পর্যন্ত যাঁরা রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন, তাঁরা ন'জন স্বাধীনদায়িত্ব প্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে মোদী সরকারে কাজ করবেন।
নবম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন মনসুখ মান্ডাবিয়া।
অষ্টম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন হরদীপ সিং পুরী।
সপ্তম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন রাজকুমার সিং।
ষষ্ঠ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে
 শপথ নিলেন প্রহ্লাদ সিং প্যাটেল।
পঞ্চম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন কিরণ রিজিজু।
চতু্র্থ রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন জিতেন্দ্র সিং।
তৃতীয় রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন শ্রীপদ যশো নায়েক।
দ্বিতীয় রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ইন্দ্রজিত্ সিং।
প্রথম রাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন সন্তোষকুমার গাঙ্গোয়ার।
মোদীর পর যে ২৪ জন শপথ নিয়েছেন তাঁরা সকলেই পূর্ণমন্ত্রী হতে চলেছেন।  এর পর রাষ্ট্রমন্ত্রীর শপথ নিতে শুরু করেন।
পঁচিশ তম মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত
চব্বিশ তম মন্ত্রী গিরিরাজ সিং।
তেইশ তম মন্ত্রী অরবিন্দ গণপত সাওয়ান্ত
বাইশ তম মন্ত্রী মহেন্দ্রনাথ পাণ্ডে
একুশ তম মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী
বিংশতম মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নকভি।
উনিশ তম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান।
অষ্টাদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন পীযূষ গোয়েল। তিনি প্রথম মোদী সরকারে একাধিক দায়িত্ব সামলেছেন। তবে উল্লেখযোগ্য রেলমন্ত্রক। এছাড়া তিনি অর্থমন্ত্রকের অতিরিক্ত দায়িত্বেও  ছিলেন।
সপ্তদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন প্রকাশ জাভড়েকর। তিনি প্রথম মোদী সরকারের সদস্য ছিলেন। তিনি ছিলেন মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী। তাঁকে এবার কোন মন্ত্রক দেওয়া হবে, তা স্পষ্ট নয়।
ষোড়শ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন হর্ষবর্ধন।
পঞ্চদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন স্মৃতি ইরানি। তিনি প্রথম মোদী সরকারেও মন্ত্রী ছিলেন। তবে তিনি  তখন ছিলেন রাজ্যসভার সদস্য। এবার তিনি প্রথম লোকসভায়। হারিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে।
চতুর্দশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ঝাড়খণ্ডের বিজেপি নেতা অর্জুন মুন্ডা।
ত্রয়োদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন রমেশ পোখরিয়াল নিশান্ত।
মোদীর শপথে প্রথম চমক। মন্ত্রী হলে সুব্রহ্মণ্যম জয়শঙ্কর। তিনি দ্বাদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন।  তিনি প্রাক্তন বিদেশ সচিব।
একাদশ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন থাওয়ার চন্দ্র গেহলট।
মোদী সরকারে দশম মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন হরসিমরত সিং বাদল। তিনি এনডিএ শরিক শিরোমনি আকালি দলের নেত্রী।
প্রথম মোদী সরকারের আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। দ্বিতীয়বারও তিনি  জায়গা পেলেন মন্ত্রিসভায়। নবম মন্ত্রী হিসেবে তিনি শপথ নিলেন।
অষ্টম মন্ত্রী হিসেবে মোদী সরকারে মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র সিং তোমর।
সপ্তম মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন লোক জনশক্তি পার্টির নেতা রামবিলাস পাসোয়ান। এনডিএ-র শরিক দলের সদস্য।
ষষ্ঠমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন নির্মলা সীতারমন। তিনি প্রথম মোদী সরকারের প্রথম দফায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী ছিলেন। এবারও তাঁকে একই দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।
মোদী সরকারের দ্বিতীয় দফায় পঞ্চম মন্ত্রী হিসেবে  শপথ নিলেন সদানন্দ গৌড়া। প্রথম মোদী সরকারে তিনি রেলমন্ত্রী হয়েছিলেন। পরে তাঁকে সরিয়ে অন্যমন্ত্রকে দেওয়া হয়। এবার কোন মন্ত্রক, তা এখনও জানা যায়নি।
মোদী ২.০ ক্যাবিনটের চতুর্থ সদস্য় নিতিন গড়কড়ি।
তৃতীয় মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন অমিত শাহ।
মোদীর পরই শপথ নিলেন রাজনাথ সিং। তবে তিনি কোন মন্ত্রকের দায়িত্বে, তা জানানো হয়নি।
শপথ নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

No comments:

Post a comment