Trending

Tuesday, 28 May 2019

ছোট নাগপুরের রানী



আজ আমরা আলোচনা করব ছোটনাগপুরের রানীকে নিয়ে। না আমি কোন রাজবংশের ইতিহাস আলোচনা করছি না, বরং একটি বিশেষ স্থানের কথা আপনাদের জানাচ্ছি যে স্থানটি তার অপার সৌন্দর্যের কারণে ছোট নাগপুরের রানী নাম পেয়েছে। ভৌগোলিক হিসেবে তার নাম নেতারহাট। অবস্থান ঝাড়খন্ডে ‌।

ব্যস্ত শহরের কোলাহল এ বিরক্ত হয়ে গিয়ে মন যখন একটু শান্ত নিরালার খোঁজ করে তখন হাতছানি দিয়ে ডাকে নেতারহাট। অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ডালি নিয়ে পাহাড়ের কোলে সে বসে আছে পর্যটকদের মনোরঞ্জনের অপেক্ষায়।



 যে বিশেষ স্থানগুলি তাকে আকর্ষণীয় করে তুলেছে সেগুলি হল দেতলা ন্যাশনাল পার্ক, হাই ভিউ জলপ্রপাত, লো ইউ জলপ্রপাত, পুনে ফরেস্ট, সানরাইজ পয়েন্ট, মঙ্গোলিয়া সানসেট পয়েন্ট এবং কোল ভিউ পয়েন্ট। তবে নেতারহাট সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত এবং আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের সময় কার সৌন্দর্যের জন্য। দূরদূরান্ত থেকে লোক আসে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের সৌন্দর্য দেখার জন্য।

কলকাতা থেকে ৫৭৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নেতারহাট। রাঁচি থেকে দূরত্ব ১৫৬ কিলোমিটার। আপনি যদি বিমান পথে যেতে চান তাহলে আপনার নিকটবর্তী বিমানবন্দর হলো বিরসা মুন্ডা বিমানবন্দর এবং রাচি বিমানবন্দর। আর যদি রেলপথে যেতে চান তবে নিকটবর্তী স্টেশন রাঁচি রেলওয়ে স্টেশন। তবে যাতায়াতের সুবিধার জন্য সড়কপথে যাওয়াই সবচেয়ে সুবিধাজনক। নিজস্ব গাড়ি বা প্রাইভেট কার অথবা প্রাইভেট বাস বা ক্যাপিটাল বাসে যেতে পারেন। 

এখানে যাওয়ার নির্দিষ্ট কোন সময় নেই, সারা বছরই এখানে আসা যায়। ব্যস্ত কলকাতার ব্যস্ত জীবনে ক্লান্ত মনকে শান্ত করার জন্য নেতারহাট আদর্শ জায়গা ‌।

No comments:

Post a comment