Trending

Saturday, 22 June 2019

বিজেপিতে যােগ দিলেন মমতার দলের পুরনাে চার সৈনিক



ক্রমশ শক্তি বাড়ছে বিজেপির।লােকসভা ভােটে বাংলায় গেরুয়া ঝড় বইয়েই চলেছে বঙ্গ বিজেপির শিবিরে। এক ধাক্কায় ২ থেকে আসন সংখ্যা ১৮ বাড়িয়ে নিয়েছে মুকুল দিলীপরা । এভাবে গেরুয়া উত্থান প্রবল মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে শাসকদল তৃণমূলের । অন্যদিকে যেভাবে দল ভাঙতে শুরু করেছেন মুকুল রায়ের তাতে চাপ আরও বেড়েছে । গােটা বাংলা জুড়ে তৃণমূলের নেতা - কর্মীরা বিজেপিতে ভিড় করছেন । নেতাদের পাশাপাশি বিজেপিতে আসছেন শাসকদলের বিধায়করাও । মুকুল - দিলীপদের দাবি , এটা নাকি কিছু নয় । ধাপে ধাপে শাসকদল ছেড়ে বিজেপিতে যােগদান আগামিদিনে আরও বাড়বে । যদিও এই প্রসঙ্গে রাজ্যের কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় তাে আগেই জানিয়ে দিয়েছেন যে , সাত দফায় যেভাবে বাংলায় ভােট হয়েছে ঠিক সেভাবে বিজেপিতে যােগদান হবে ।আর এই হুঁশিয়ারির মধ্যেই তৃণমূল ছাড়লেন দলের সাধারণ সম্পাদক । 

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যােগ দিয়েছেন কালনা ১ নম্বর ব্লকের সাধারণ সম্পাদক। তার সঙ্গেই বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন তৃণমূলের চার নেতাও । প্রকাশিত খবর মােতাবেক দলবদল করেছেন ব্লকের সাধারণ সম্পাদক ও পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সদস্য মিলন ঘােষ , কাকুড়িয়া পঞ্চায়েতের প্রাক্তন উপপ্রধান আয়ুব নবি শেখ , বেগপুর পঞ্চায়েতের প্রাক্তন উপপ্রধান মারফত আলি শেখ এবং কাকুড়িয়া পঞ্চায়েতের প্রাক্তন সদস্য সুব্রত মাজিলা । সম্প্রতি কালনার সহজপুর বাজারের কাছে একটি অনুষ্ঠান করা হয় বিজেপির তরফে । সেখানেই বিজেপিতে যােগ দেন ওই চার তৃণমূল নেতা । তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যােগ দেওয়া নেতাদের দাবি , রন্ধে রন্ধে ভরে গিয়েছে দুর্নীতি । আর সেই দুর্নীতি থেকে মুক্তি পেতেই এই দলবদলের সিদ্ধান্ত ।যদিও এই বিষয়ে বেশি ভাবতে চায় না স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব । তাদের পালটা দাবি , সাধারণ মানুষের সঙ্গে কোনও যােগ ছিল না তাদের প্রলােভন দেখিয়ে তাদের দলবদল করানাে হয়েছে বলে মত তৃণমূলের। ফলে তাদের এভাবে দলত্যাগ অবশ্যই শাসকদলের কাছে বড় ধাক্কা হিসাবেই দেখছে রাজনৈতিকমহল।

No comments:

Post a comment