Trending

Tuesday, 25 June 2019

কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পরল বারোশো হেলমেট বিহীন বাইক চালক।



সপ্তাহ শেষে রাতে বাইক নিয়ে ঘুরতে বেরোনো একটা অ্যাডভেঞ্চার হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রথমত হেলমেট না থাকা দ্বিতীয়তঃ একটি বাইকে তিনজন করে যাওয়া তো এখন খুবই সাধারন ব্যাপার। এই সমস্ত কারণে দুর্ঘটনা বাড়ছে কিন্তু তবুও বাইক আরোহী দের কোন হেলদোল নেই। এবার সেই বেপরোয়া বাইক বাহিনী কে আটকাতে নয়া উদ্যোগ নিল কলকাতা পুলিশ।

শনিবার রাতে একসঙ্গে 48 টি জায়গায় নাকা চেকিং চালিয়ে 1 278 জন কে ধরল পুলিশ। সব মিলিয়ে সেদিন  2178 জন কে আটক করে পুলিশ। 

কিছুদিন আগে প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া কে রাতের শহরে হেনস্থা করার পর থেকেই এই বাইক বাহিনীর বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান শুরু হয়েছিল ।গত সপ্তাহে বেশ কয়েকবার নাকা চালিয়ে কোথাও থেকে 600 জন আবার কোথাও থেকে 800 জনকে ধরা হয়। এই নাকা চেকিং চলতো সম্পূর্ণ গোপনে। আগে থেকে কোন খবর থাকতো না কোথায় কোন দিন চেকিং হবে। তবে সপ্তাহের শেষের দিন শনিবার যে বাইক বাহিনীর তান্ডব বাড়বে সে বিষয়ে নিঃসন্দেহ ছিলেন কলকাতা পুলিশ কর্তারা।

তাই সেদিন একসঙ্গে 48 টি জায়গায় নাকা চালানো হয়। বেপরোয়া বাইক চালানো দেখলেই আটকানো হচ্ছিল। জানা গিয়েছে একটি বাইকে একসঙ্গে তিন জন বা তারও বেশি আরোহী থাকে ।মাথায় হেলমেট থাকেনা ,এমনকি অনেক সময় মদ্যপ অবস্থায় বেপরোয়া গতিতে বাইক চালানোর মতো ঘটনাও দেখা যাচ্ছে। শনিবার রাতে তাই থানা এবং ট্রাফিক পুলিশ যৌথ উদ্যোগে নাকা চেকিং শুরু করে। প্রত্যেকটি বাইক কে পরীক্ষা করা হয়। আরোহীর হেলমেট আছে কিনা, আরোহী মদ্যপ অবস্থায় আছে কিনা সমস্ত কিছু পরীক্ষা করা হয়। হেলমেট না থাকলে ট্রিপল আরোহীর ক্ষেত্রে কাউকেই ছাড়া হয়নি।

সেই রাতেই আটক 2, 178 জনের বিরুদ্ধে মামলা করে কলকাতা পুলিশ ।তার মধ্যে হেলমেট বিহীন অবস্থায় ছিল 592 জন। 1178 জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় ট্রিপল রাইডিং এর জন্য। সেদিন রাতেই পুলিশ 77 টি বাইক আটক করে। 

No comments:

Post a comment