Trending

Tuesday, 25 June 2019

হাতছাড়া হলো জেলা পরিষদ



দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পরিষদ তৃণমূলের হাত থেকে বেরিয়ে গেল। সেখানকার সভাধিপতি সহ আরো 10 জন সদস্য তৃণমূল ছেড়ে দিয়েছেন। বিপ্লব মিত্র দল ছাড়া সঙ্গে সঙ্গে বাকিরাও দল ছেড়ে দেন। এর ফলে চাপ সৃষ্টি হলো তৃণমূল শিবিরে।

বিপ্লব মিত্র অত্যন্ত প্রভাবশালী একজন সাংগঠনিক নেতা। তাই তিনি দলবদল পড়ায় স্বভাবতই চিন্তার ভাঁজ করেছে তৃণমূল শিবিরে। তবে দক্ষিণ দিনাজপুর তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষ মনে করেন জেলা পরিষদের অনেক সদস্য দিল্লি গিয়েছেন ,তারা ফিরে এলেই সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

এদিকে সোমবার পাওয়া খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে 10 জন সদস্য দিল্লি গিয়েছেন। এদের মধ্যে চারজন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে তারা নিজের ইচ্ছেয় দিল্লি আসেননি। বিজেপি থেকে তাদের জোর করে নিয়ে আসা হয়েছে। তাই তারা দিল্লী থেকে ফিরে এসে আবারো তৃণমূলে যোগ দেবেন।

এদিকে বিজেপি নেতা মুকুল রায় সম্পূর্ণ বিপরীত কথা বলছেন। তার মতে দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলা পরিষদের 18 জন সদস্যের মধ্যে সভাধিপতি সহ 10 জন ইতিমধ্যেই গেরুয়া শিবিরে নিজেদের নাম লিখিয়েছেন। দু-একদিনের মধ্যে বাকি চারজন নিজেদের নাম লিখিয়ে নেবেন। তাই তার পর থেকে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে ।সে দিক থেকে হিসেব করলে দক্ষিণ দিনাজপুরই প্রথম জেলা পরিষদ যেটা রাজ্যের মধ্যে বিজেপি দখল করতে সক্ষম হল। 

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাপরিষদের ১৮টি আসনের মধ্যে সভাধিপতি সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই তা বিজেপির দখলে গেল বলেই রাজনৈতিক মহলের দাবি। এদিন দিল্লিতে জেলাপরিষদের সভাধিপতি লিপিকা রায়কে প্রথম বরণ করে এদিনের অনুষ্ঠান শুরু হয়। এদিন জেলাপরিষদ দখলের আনন্দে বালুরঘাটে বিজেপির জেলা কার্যালয়ে শুরু হয় উল্লাস। পটকা ফাটিয়ে ও গেরুয়া আবির খেলায় মেতে ওঠেন কর্মী সমর্থকরা। বিজেপি নেতা মুকুল রায় এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন বিপ্লব মিত্র এমন একজন রাজনৈতিক নেতা যাাঁকে উত্তরবঙ্গের সকলে এক ডাকে চেনেন।
তাঁর নেতৃত্বে প্রথম কোন জেলাপরিষদ তাঁদের দখলে এলো। এটা শুধুই শুরু। এবার দক্ষিণ দিনাজপুরের আরও দুইটি পুরসভা ও একে একে অন্যান্য জেলাপরিষদও তৃনমূলের হাত ছাড়া হবে বলে মুকুল রায় জানিয়ে দেন।

No comments:

Post a comment