Trending

Friday, 21 June 2019

সরকারি কাজ পেতে গেলে লাগাতে হবে গাছ



ব্যাপারটা অনেকটা সোজা আঙ্গুলে ঘি না উঠলে আঙ্গুল বাঁকিয়ে ঘি তোলার মত। উষ্ণায়ন থেকে বাঁচার জন্য লাগাতে হবে প্রচুর পরিমানে গাছ ।কিন্তু মানুষের মধ্যে সবুজায়ন সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করা যাচ্ছে না ,তাই এবার অভিনব উদ্যোগ নিল পুরুলিয়ার নিতুরিয়া ব্লকের শালতোর গ্রাম পঞ্চায়েত।

লাখ টাকার সরকারি প্রকল্পে কাজ করলে কোলিয়ারি এলাকায় সংস্থাকে 5 টি গাছ লাগাতে হবে এবং ছমাস ধরে সেগুলির পরিচর্যা করতে হবে। যদি ছমাসে মধ্যে গাছ গুলির কোন ক্ষতি হয় বা মরে যায় তাহলে সরকারি প্রকল্পে কাজের জন্য সরকারের কাছে জমা থাকা সিকিউরিটি মানি ঠিকাদারি সংস্থার পাবে না।নিতুরিয়া পঞ্চায়েত সমিতি মিথিলা ব্লক এই এই প্রকল্প কার্যকরী করতে চায়। এমনিতে এটি খনী এলাকা। চারপাশে শুধু কয়লা ধুলো উড়ে বেড়ায়। আর এই খনি এলাকার রুক্ষ অবস্থাকে সবুজ করার জন্যই এই অভিনব চ্যালেঞ্জ নিয়েছে শালতোর গ্রাম পঞ্চায়েত।

তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত শালতোর পঞ্চায়েতের প্রধান সুনীল যাদব জানান চারিদিকে আবহাওয়ার যেভাবে পরিবর্তন হচ্ছে তাতে এখনই সবুজায়নের দিকে নজর না দিলে বিপদ বাড়তে পারে। তাই একথা ঘোষণা করা হয়েছে যে এক লাখ টাকার সরকারি কাজ করলে ঠিকাদারি সংস্থাকে 5 টি গাছ লাগিয়ে তা রক্ষণাবেক্ষণ করতে হবে। কাজের জন্য যত অর্থের পরিমাণ বাড়বে তত গাছের সংখ্যাও বাড়বে। কোন ঠিকাদারি সংস্থা 10 লাখ টাকার কাজ করলে তাকে 50 টি গাছ লাগাতে হবে।

গাছের চারা দেওয়া হবে গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে ,এমনকি গাছে জল দেওয়ার জন্য মজুর নিয়োগ করা হবে 100 দিনের কাজের প্রকল্পে নিয়োগ করা শ্রমিকদের থেকে। প্রথম ছমাস তাকে জাল বেড়া দিয়ে সংরক্ষণ করতে হবে। গাছ কোথায় লাগানো হবে তার খাস জমিও দিয়ে দেবে পঞ্চায়েত। আপাতত দামোদরের পাড়ে খাস জমিতে গাছ লাগানো হবে। সাধারণভাবে এই গ্রাম পঞ্চায়েত এ বছরে 1 কোটি টাকার কাজ হয় তাই হিসেব করলে কি কাজের নিরিখে 500 গাছ লাগানো হয়ে যাবে এই এলাকায়। শালতোর গ্রাম পঞ্চায়েত যে ভূমিকা নিয়েছে সবুজায়নের জন্য তা সত্যিই প্রশংসনীয়। 


No comments:

Post a comment