Trending

Thursday, 27 June 2019

মার্কিন পররাষ্ট্র সচিবের কন্ঠে ধর্মীয় স্বাধীনতার সুর



মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব মাইক পাম্পে ভারত সফরে এসে ধর্মীয় স্বাধীনতার অধিকার রক্ষার পক্ষে সওয়াল করলেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে ভারত যে জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে তাতে ভারতে ধর্মীয় সংকট চরম মাত্রা নিয়েছে বলেই তার বক্তব্য। গত সপ্তাহে মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের বার্ষিক ইন্টারন্যাশনাল ফ্রিডম রিপোর্টে স্পষ্ট বলা হয়েছে ভারতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ধর্মীয় হিংসার শিকার হচ্ছে।

ভারতীয় মুসলিমদের অবস্থা সংকটাপন্ন ।তারা চরমপন্থী হিন্দুদের দ্বারা নানাভাবে নির্যাতিত হচ্ছে। এমনকি গোমাংস ভক্ষণ নিয়েও তাদের উপর অত্যাচার করা হচ্ছে বলেই রিপোর্টে জানানো হয়। সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মার্কিন বিদেশ সচিবের এই মন্তব্যটি সত‍্যিই  তাৎপর্যপূর্ণ। তবে এই মন্তব্যের পরে ভারত সরকারের তরফ থেকে প্রতিবাদ জানানো হয়।

হয়তো সে কারণেই এবার মার্কিন বিদেশ সচিব ভারতে এসে স্পষ্ট ভাবে তার বক্তব্যে জানিয়ে দিলেন ধর্মীয় স্বাধীনতা রক্ষার বিষয়টি। কারণ যতই নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকুক ধর্মীয় হিংসার ব্যাপারটা যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভালোভাবে মেনে নিচ্ছে না তার বক্তব্যে এটা স্পষ্ট। তার মতে বিশ্বের প্রধান চারটি ধর্মের পীঠস্থান হলো ভারত বর্ষ। সে কারণে ভারতবর্ষে ধর্মীয় স্বাধীনতা থাকা খুবই দরকার।

এদিন তিনি মাসুদ আদহার কে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদি বলে ঘোষণা করেন। তার মতে জাতিসংঘের মহাসচিব মাসুদকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ ঘোষণা করায় আমেরিকা খুবই খুশি। জাতিসংঘে ভারত সম্প্রতি প্যালেস্টাইনের এনজিওর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে। কারণ প্যালেস্টাইনে সন্ত্রাসবাদের সমর্থন করা হচ্ছিল।

বিদেশ সচিব মাইক পম্পে আরো জানান ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতি দুজনেই সুদক্ষ নেতা। তারা কোন রকমে ঝুঁকি নিতে ভয় পান না। বলা যেতে পারে তাদের উচ্চাকাঙ্খাই দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

No comments:

Post a comment