Trending

Monday, 24 June 2019

সেনাপ্রধানকে গুলি করে খুন। গৃহযুদ্ধ হওয়ার সম্ভাবনা দেশে।


যেকোনো দেশ পরিচালনা করে রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীমন্ডল। আর দেশের সুরক্ষা ব্যবস্থার ভার থাকে সেনাপ্রধানের ওপর। যার ওপর পুরো দেশ ভরসা করে নিজেদের সুরক্ষিত বোধ করে। কিন্তু ইথিওপিয়ার সেনাপ্রধান সিয়ারে মেকননের সাথে ঘটে গেছে এক দুর্ঘটনা। তারই দেহরক্ষীর হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান তিনি। প্রথমদিকে সেনা প্রধানের মৃত্যু নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়, পরে একাধিক সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে মৃত্যু হয়েছে সেনা প্রধানের।




ইথিওপিয়া সরকার গোটা ঘটনায় উদ্বিগ্ন ৷ প্রধানমন্ত্রী আবে আহমেদ সংবাদমাধ্যম সচিব নেগুসু তিলাহুন রয়টার্সকে জানান, "দেশের আমহারা এলাকায় একটি সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা হয়েছিল।" তার কয়েক ঘণ্টা পর সেনাবাহিনী প্রধান গুলিবিদ্ধ হন। ষড়যন্ত্রকারীরা আমহারা প্রদেশ সরকারের প্রধান আম্বাকিউ প্রধানমন্ত্রী মেকননেনকে ক্ষমতাচ্যুত করার উদ্যোগ নিয়েছিল। এ ঘটনার পর ষড়যন্ত্রকারীদের ধরতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে৷ঘটনার পর ইথিওপিয়ায় ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলের বাসিন্দারা ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনার কথা জানিয়েছেন। রাজধানী আদ্দিস আবাবাতেও গোলাগুলির শব্দ শোনা গিয়েছে।  সেখানকার মার্কিন দূতাবাসের মাধ্যমেও জারি হয়েছে সতর্কতা ৷ এমন প্রতিবেদন তারা পেয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

No comments:

Post a comment