Trending

Thursday, 27 June 2019

বিজেপিকে রুখতে অস্ত্র বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস



৪২ শে ৪২ তো হল না। সামনে একুশের নির্বাচনেও যে খুব একটা স্বস্তির খবর আছে এমন নয়। তৃণমূল কংগ্রেস ভাঙতে বসেছে ।বিধায়ক থেকে শুরু করে পঞ্চায়েত সদস্য ,কাউন্সিলর সবাই জোড়া ফুল ছেড়ে পদ্ম ফুলের দিকে ঝুঁকছেন। এমতাবস্থায় টিকে থাকার লড়াইয়ে নতুন পন্থা বের করলে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার বিধানসভা অধিবেশন এই তিনি নিজের চিরশত্রূ বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেসকে তার সঙ্গে যৌথভাবে লড়াই করার আহ্বান জানান। তার মতে সিপিএম বা কংগ্রেস আর যাই করুক দেশটাকে ভাঙবে না ।কিন্তু বিজেপি হয়তো সংবিধানটাই বদলে দেবে।

অবশ্যই তারপরে কংগ্রেসের নেতা আব্দুল মান্নান তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন, তাদের পার্টি অফিস দখল করার। তিনি বলেন কংগ্রেসের অনেক পার্টি অফিস তৃণমূল দখল করে নিয়েছে ।এরকম জোরজবরদস্তি কেন? তার কথার উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন আমাকে তালিকা দিন ।আমি বিষয়টি খতিয়ে দেখছি ।আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না।

এবার এই প্রথম নয়, কয়েক বছর আগেও বিজেপির বাড়বাড়ন্ত বুঝতে পেরে বামফ্রন্ট কে নবান্ন থেকে ফিস ফ্রাই খাইয়ে  নিজের দলে টানতে চেয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

এবার লোকসভা ভোটে ১৩০ টির ও বেশি আসনে এ রাজ্যে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি। বিশেষজ্ঞদের মতে বামফ্রন্টের ভোট গুলি পেয়েছি বিজেপি ।আর যদি এমন অবস্থা এরপরেও চলতে থাকে তাহলে ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল সরকারের অস্তিত্ব সংকটে পড়ে যাবে। তাই আগে থেকেই বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস কে নিজের দলে টানার চেষ্টা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।।

অবশ্য আলিমুদ্দিন ও বিধান ভবনের নেতারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ডাকে সাড়া দিতে নারাজ। পলিটব্যুরো সদস্য মহাম্মদ সেলিম বলেন উনি তো কয়েকদিন আগেই বলেছিলেন সিপিএম কংগ্রেস বিজেপি সবাই একজোট হয়ে লড়াই করছে।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বক্তব্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কখনও বলছেন কংগ্রেসকে সাইনবোর্ড করে দেবেন। আবার কখনও বলছেন কংগ্রেস দেশটাকে ভাঙবে না। কোনটা সত্যি সেটা আগে উনি নিজে ঠিক করুন। এদিকে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের দাবি বামফ্রন্ট কংগ্রেস এবং তৃণমূল একজোট হয়ে উঠলেও ২০২১ এ নির্বাচনে তারা বিজেপিকে হারাতে পারবে না।

No comments:

Post a comment