Trending

Sunday, 16 June 2019

বধু কে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা




সম্পত্তির লোভে এক গৃহবধূকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল তার ভাসুর ও দেওরের বিরুদ্ধে।৫৭ বছরের সীমা মজুমদার রায়গঞ্জের রবীন্দ্রপল্লী এলাকার বাসিন্দা।প্রতিবেশীদের বয়ান অনুযায়ী সীমা মজুমদারের সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার জন্য অনেক দিন ধরেই তার ভাসুর মদন মজুমদার এবং দেওর মৃদুল মজুমদার সীমা দেবীর ওপর অকথ্য অত্যাচার চালিয়ে আসছিলেন। তাকে বিভিন্নভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হতো। শুক্রবার দিন তাদের সমস্ত অত্যাচার মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। প্রচণ্ড মারধোর করার পর সীমা মজুমদারের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয় তার ভাসুর এবং দেওর। চিৎকার চেঁচামেচি শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। তারাই অগ্নিদগ্ধ বধূকে সেখান থেকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানেই রাত সাড়ে আটটা নাগাদ তিনি মারা যান।

এরপরই উত্তেজিত জনতা মদন এবং মৃদুল মজুমদারের বাড়ি ভাঙচুর করে। অবশেষে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সীমা মজুমদারের ভাই প্রশান্ত দাস অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযুক্তদের ফাঁসির দাবি করছে মৃতার পরিবার। 
সীমা মজুমদারের দেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। 

No comments:

Post a comment