Trending

Tuesday, 23 July 2019

ভারত পাকিস্তানের হৃদ্যতা ফেরাতে উৎসুক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র



ভারত পাকিস্তানের চিরকালীন বৈরিতা দূর করে তাদের মধ্যে ভালবাসার পরশ আনতে এবার উদ্যোগী হলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন কাশ্মীর নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বহু পুরনো বিবাদ থাকলেও তিনি তার মধ্যস্থতা করার চেষ্টা করবেন।

যদিও এতদিন পর্যন্ত কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতামত ছিল যে, এটা দুই দেশের আভ্যন্তরীণ সমস্যা ।এই বিষয়ে আমেরিকা কোন ভাবে নাক গলাবে না কিন্তু এবার সম্পূর্ণ উল্টো সুর গাইছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এর কথা অনুযায়ী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে আমেরিকার সাহায্য চেয়েছেন। তাই এই বিষয় নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে আমেরিকা।

সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে হোয়াইট হাউসে  বেশ কিছুক্ষণের আলোচনা হয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। কিছুক্ষণ পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তরফেই এই কথা জানানো হয়। ইমরান খানকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে কোনরকম সাহায্য লাগলে আমাদের জানাবেন। এ দিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ট্রাম্প জানান 'কাশ্মীর সম্পর্কে অনেক শুনেছি।সেটি খুবই সুন্দর জায়গা, কিন্তু বর্তমানে তার পরিস্থিতি খুবই খারাপ। শুধুমাত্র গুলির আওয়াজ শোনা যায় সেখানে।'

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তিন দিনের সফরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র গেলেও সেখানে তার অভ্যর্থনা সঠিকভাবে হয়নি। এমনকি বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত ছিলেন না কোন সরকারি আধিকারিক ও।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে ইসলামাবাদের  সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্কের অবনতি হয় ।বিশেষত জঙ্গি দমনে পাকিস্তান ব্যর্থ, সন্ত্রাসবাদীদের মদতের অভিযোগ ইত্যাদি জানানো হয় আমেরিকা তরফে।  এমনকি পাকিস্তানের অনুদানে ও বেশ কাটছাঁট করা হয়। ট্রাম্প বরাবরই জানিয়েছেন জঙ্গিদের সম্পর্কে পাকিস্তান সঠিক তথ্য দিচ্ছে না। জঙ্গিদের মদত দেওয়ার জন্য বরাবরই আমেরিকার তরফ থেকে বেশ চাপে থেকেছে পাকিস্তান। এই ঘটনার পরে হোয়াইট হাউসে ইমরান খানের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ এবং ভারত পাকিস্তানের সমস্যা নিয়ে আলোচনা নতুন কিছুর আভাস দেয়।

No comments:

Post a comment