Trending

Tuesday, 23 July 2019

আয়কর বিভাগ নোটিস পাঠাল ফোরাম ফর দুর্গোৎসবকে



পুজো আসছে ।বিভিন্ন জায়গাতে  পুজোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। এর মধ্যেই আয়কর বিভাগ নোটিস পাঠাল ফোরাম ফর দুর্গোৎসব কমিটিকে।এটি নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এর আগে লোকসভা ভোটের আগেই কলকাতার 40 টি বড় পুজো কমিটিকে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল আয়কর বিভাগের তরফ থেকে। আর এবার সরাসরি ফোরাম ফর দুর্গোৎসব সংগঠনকে আয়কর বিভাগে তরফ এ নোটিস পাঠানো হলো। এই কমিটির আওতায় চারশো টি পুজো কমিটি রয়েছে। জানুয়ারি মাসে পূজা কমিটি গুলিকে আয়কর বিভাগের দপ্তরে ডেকে পাঠানোর পরে তারা জানতে পারে এই দুর্গোৎসব ফোরামের কথা। তাই পুজো কমিটিগুলিকে আলাদা আলাদা ভাবে চিঠি না দিয়ে সরাসরি সংগঠনকে চিঠি দিল আয়কর দপ্তর।

তাদেরকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে পুজোর কোন খাতে কত ব্যয় হচ্ছে তার প্রয়োজনীয় হিসেবে পত্র রাখতে ।অর্থাৎ যে সমস্ত খাতে বেশি ব্যয় হবে সেই সমস্ত হিসেব নথিভুক্ত করে রাখতে ।যাতে দরকার পড়লে ইনকাম ট্যাক্স দপ্তর সেগুলি খতিয়ে দেখতে পারে এবং বুঝতে পারে যে তারা সঠিক ভাবে আয় কর দিচ্ছে কিনা।

গত সপ্তাহেই ফোরাম ফর দুর্গোৎসব কমিটি আয়কর বিভাগের কাছ থেকে নোটিশ পেয়েছে ।এরপর তারা আয়কর ভবন এ গিয়ে দেখাও করে এসেছে। সংগঠনের এক্সিকিউটিভ কমিটির সদস্য পার্থ ঘোষ জানান আয়কর বিভাগ তাদের জানিয়েছে তাদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে এবং পূজার যে সমস্ত খাতে বেশি ব্যয় হয় সেই সমস্ত হিসেব রাখতে।

এই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলছেন ভোটের সময় বিজেপির হিন্দু মুসলিম নিয়ে ভেদাভেদ করে। আর ভোটের পরে উৎসব নিয়ে মেতে উঠেছে। এটি সাধারণ মানুষের উৎসব এতে রাজনীতির রং লাগানো ঠিক নয়। কয়েক মাস আগে কলকাতার বড় চল্লিশটি পূজা কমিটি কে তাদের আয়ের উৎস জানতে চেয়ে পাঠিয়েছিল আয়কর দপ্তর। এই ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছেন তিনি। তিনি জানান এটি সাধারণ মানুষের উৎসব। সাধারণ মানুষ স্বেচ্ছায় এখানে দান করেন। রাজনৈতিক নেতারা চাঁদা তুললে যদি  সেটা আয়কর দপ্তর এর আওতায় না আসে তাহলে সাধারণ মানুষ উৎসব পালন করলে সেটা কেন আয়কর দপ্তর এর মধ্যে ধরা হবে ? 

No comments:

Post a comment