Trending

Monday, 15 July 2019

জোর করে 'জয় শ্রী রাম' আর নয়





এবার তৃণমূলের দুই সাংসদ নুসরাত ও মিমি 'জয় শ্রীরাম' ইস্যু নিয়ে মমতা ব্যানার্জিরপাশে দাঁড়ালেন।সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে গিয়ে এই ইস্যুতে প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে নুসরত বলেন, ‘গলা মিলিয়ে জয় শ্রী রাম বলুন, গলা টিপে নয়।’ তিনি জানান, তিনি নিজেও এ ধরনের ঘটনার মুখোমুখি হয়েছেন। তাঁর স্পষ্ট মন্তব্য, “ঈশ্বরের নাম বলায় কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু কাউকে জোর করে বলতে বাধ্য করানোর মধ্যে সমস্যা রয়েছে”।
এহেন নুসরাত বলেন , ইদের শুভেচ্ছা জানানোর জন্য প্রায় হাজারখানেক ‘জয় শ্রীরাম’ মেসেজ পেয়েছেন তিনি। কিন্তু এর কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি। তবে উপলক্ষ্যটা যখন ইদ, তখন তাঁকে ‘ইদ মোবারক’ মেসেজ তাঁরা পাঠাতে পারতেন বলেই মনে করেন সাংসদ। কিছুদিন আগেই কলকাতার ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে নুসরতের। বিদেশে বিয়ে সেরে দেশে ফিরেই সিঁদুর, মঙ্গলসূত্র পরে সংসদে তাঁর শপথ নিতে যান তিনি। এরপরই দেশজোড়া বিতর্কের সৃষ্টি হয়। তিনি মুসলমান হয়ে কেন হিন্দুদের ধর্মীয় আচার-আচরণ পালন করছেন, তা নিয়ে ফতোয়া জারি করে উত্তরপ্রদেশের একটি মৌলবাদী সংগঠন। কিন্তু তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, “সব ধর্মকেই আমি শ্রদ্ধা করি। আমি একজন মুসলমান। কিন্তু যে ভারত জাতপাত-ধর্ম সবের ঊর্ধ্বে, আমি এখন সেই ভারতের প্রতিনিধি”। এমনকী তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন বাংলা থেকে নির্বাচিত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী, সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় সহ আরও অনেকে। তিনি ওই সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বলেন, “সবার মনে রাখা উচিত, এক জন সাংসদের পাশাপাশি আমি একজন মানুষ। ফলে আমি কী পরব, কাকে বিয়ে করব, সেটা আমার নিজের পছন্দের বিষয়”।

'জয় শ্রী রাম' প্রসঙ্গে নুসরত একটি শায়রি উল্লেখ করে বলেন, ‘মন্দির পরে বানাবেন, মসজিদ পরে বানাবেন। যে ঘর আর মন ভেঙে গেছে, সেটা আগে বানান।



No comments:

Post a comment