Trending

Tuesday, 2 July 2019

মৃত মেয়ের প্রাণ ফেরাতে ভরসা ওঝা



বর্ধমানের কালনার অকাল পৌষ গ্রামে যোগেশ মুর্মু র মেয়ে কবিতাকে সাপে কামড়ায় শনিবার রাতে। তড়িঘড়ি তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কালনা হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। চিকিৎসক মৃত বললেও এ কথা বিশ্বাস করেনি মেয়ে টির এর পরিবারের লোকজন। তাই হাসপাতাল থেকে লুকিয়ে দেহ নিয়ে তারা সোজা চলে আসে ওঝার কাছে। তাদের বিশ্বাস ওঝা ঝাড়ফুঁক করে দিলে মেয়ের দেহে আবার প্রাণ ফিরে আসবে। আর ওঝা ও  মেয়েটির পিতা যোগেশ মুর্মু কে আশ্বাস দিয়েছিলেন তার মেয়েকে তিনি বাঁচিয়ে তুলবেন।

সেইমতো দুদিন ধরে মৃতদেহ আটকে রেখে চলে বিভিন্ন মন্ত্র পাঠ এবং ঝাড়ফুঁক। গোটা রবিবার সারা দিনরাত উঠোনে মেয়ের দেহ রেখে সেখানে বিভিন্ন পূজার্চনা ঝাড়ফুঁক করা হয়। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। মেয়ের দেহে প্রাণ ফেরেনি। তাই সোমবার সকালে আবার মেয়েটির দেহ নিয়ে তারা কালনা হাসপাতাল এ আসে। অবশেষে সেখানে ময়না তদন্ত করার পর 17 বছরের কিশোরীর দেহটি সৎকারের জন্য ছাড়া হয়। যদিও ততক্ষণে মৃতদেহটি তে পচন ধরে গেছে।

মেয়েটির বাবা যোগেশ মুর্মুর কথায় ডাক্তাররা বলেছিল মেয়ে মারা গেছে ।কিন্তু আমি মানতে পারিনি ।তাই মেয়ে কে বাঁচানোর আশায় ওঝার কথা মত তার বাড়িতে মেয়েকে নিয়ে এসেছিলাম কিন্তু ওঝা ও বাঁচাতে পারলো না। অন্যদিকে হাসপাতাল থেকে কি করে তারা দেহ লুকিয়ে নিয়ে চলে আসলো সেই নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

No comments:

Post a comment