Trending

Wednesday, 10 July 2019

বড়সড় ফাটল উল্টোডাঙা ফ্লাইওভারে



মঙ্গলবার সন্ধ্যায় হঠাৎ করে উল্টোডাঙা ফ্লাইওভারের একাংশে একটি বড়সড় ফাটল দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গে জনগণের মধ্যে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে ।কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পূর্ত দপ্তরের আধিকারিক এবং ইঞ্জিনিয়ার রা। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণের পর এই ফ্লাইওভারে যান চলাচল আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বলা হয়েছে এই ঘটনার কারণে আগামী তিন দিন উল্টোডাঙা ফ্লাইওভার বন্ধ রাখা হবে। এরপর এই ই এম বাইপাসে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। পুলিশ আধিকারিকরা যথাসম্ভব চেষ্টা চালিয়ে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় যানজট মেটাবার  চেষ্টা করছেন।

এই ঘটনার পরই শহরের মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন শহরে প্রত্যেকটি ফ্লাইওভারের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য একটি বিশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

সে কমিটি আজ উল্টোডাঙ্গা ফ্লাইওভার পরীক্ষার সময় একটি বড়সড় ফাটল দেখতে পায়। তিনি জানিয়েছেন আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার সেই ফাটল ধরা জায়গাটি খতিয়ে দেখবেন পূর্ত দপ্তরের ইঞ্জিনিয়ারেরা। মেয়র এও জানান এই নিয়ে বেশি আতঙ্কিত হবার কোন কারণ নেই ।

শোনা যাচ্ছে 2013 সালের মার্চ মাসে ফ্লাইওভারের যে অংশে  ভেঙে পড়েছিল, আবারো সেই জায়গাতেই ফাটল ধরা পড়েছে। ঠিক কোন জায়গায় ফাটল হয়েছে তা এই মুহূর্তে জানানো হয়নি প্রশাসনের তরফ থেকে। বাইপাস থেকে লেকটাউন গামী এবং লেক টাউন থেকে বাইপাস গামী দুটি ফ্লাইওভার কে ই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

পুজোর আগেই চালু হয়েছিল উল্টোডাঙার বন্ধ হয়ে থাকা ফ্লাইওভার। কয়েক বছর আগে ইএম বাইপাস থেকে এয়ারপোর্ট গামী ফ্লাইওভারের রেলিং এর কিছু অংশ একটি লরির ধাক্কায় ভেঙে যায়। ভেঙে যাওয়া অংশ খুলে পড়ে পাশের খালে। বিশেষজ্ঞদের অনুমান বেয়ারিং উল্টো করে লাগানোর জন্যই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। তারপরই কয়েক বছর ধরে ফ্লাইওভার সারানো হয় এবং ওজন মাত্র কয়েক দিন আগেই ফ্লাইওভারটি খোলা হয়েছিল। এরই মধ্যে আবার সেই একই স্থানে ফাটল ধরা পরল। 

No comments:

Post a comment