Trending

Tuesday, 20 August 2019

ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন হয়ে ধুন্ধুমার নদিয়ার তেহট্টতে





বেপাড়ায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিজয় উৎসব করতে গিয়ে চরম বিপদের মুখোমুখি হলো দশ জন ফুটবলার।স্থানীয় বাসিন্দাদের বেধড়ক মারে গুরুতর আহত ১০ জন। আহতদের মধ্যে দু’জনের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাটি নদিয়ার পলাশিপাড়া থানার শ্রীনাথপুরে।ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানায় ঘটনার সূত্রপাত হয় রবিবার।সেদিন স্থানীয় একটি ফুটবল প্রতিযোগিতার ফাইনাল ম্যাচ খেলতে নেমেছিল পলাশীপাড়ায় শ্রীনাথপুরেরই একটি ক্লাব।শেষপর্যন্ত প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়নও হয় তারাই। রাতে যখন ট্রফি নিয়ে পটকা ফাটিয়ে আনন্দ করতে করতে ফিরছিলেন বিজয়ী দলের ফুটবলাররা, তখনই গন্ডগোল শুরু হয়। 

অভিযোগ, শ্রীনাথপুরের মণ্ডলপাড়া দিয়ে যাওয়ার সময় ক্লাবের জনা দশেক খেলোয়াড়ের উপর রীতিমতো চ্যালাকাঠ নিয়ে চড়াও হন স্থানীয় বাসিন্দারা। একসময়ে ইঁট, লাঠি হাতের কাছে যা পাওয়া গিয়েছে, তা দিয়েই চলে বেধড়ক মার। এমনকী, চ্যাম্পিয়ন দলের খেলোয়াড়দের হাত থেকে ট্রফিটিও কেড়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। আহত দশজনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। দু’জনের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। এদিকে যে ক্লাবের খেলোয়াড়দের মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ, সেই ক্লাবের সম্পাদক থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।কিন্তু, ক্লাবের ফুটবল টিমের সদস্যদের কেন মারধর করলেন স্থানীয় বাসিন্দারা?সে প্রসঙ্গে  ক্লাবের সম্পাদক রিন্টু শেখের দাবি, যে এলাকায় হামলার ঘটনাটি ঘটেছে, সেই এলাকার কোনও খেলোয়াড় দলে সুযোগ পাননি। তার উপর আবার সেই বেপাড়ার  টিম চ্যাম্পিয়নও হয়েছে।সেই আক্রোশেই খেলোয়াড়দের মারধর করা হয়েছে।

No comments:

Post a comment