Trending

Saturday, 24 August 2019

ট্যাংরায় রহস্যজনকভাবে খুন শ্বশুর-পুত্রবধূ



রহস্যজনকভাবে খুন হলেন শশুর এবং পুত্রবধূ। একজনের দেহ পড়েছিল বাড়ির উঠোনে,অন্যজনের দেহ সদর দরজার সামনে।অথচ সদর দরজা ভেতর থেকে বন্ধ ছিল।এই জোড়া খুন নিয়ে রহস্য ক্রমাগত দানা বাঁধছে।শ্বশুরঃ লি কা সিং এর বয়স 89 বছর এবং পুত্রবধূ  মিঃ হা-র বয়স 60 বছর।দীর্ঘদিন তারা ট্যাংরার ওই অঞ্চলের বাসিন্দা ।বাড়িতে বিশেষ কোনো অশান্তি ছিল বলেও জানা যায়নি।ঘটনার সময় মিঃ হা র স্বামী বাইরে খেতে গিয়েছিলেন।তিনি সাড়ে আটটা নাগাদ বাড়ি ফেরেন।অনেক ডাকাডাকি করার পরেও কেউ দরজা খোলে না।তিনি স্ত্রীর মোবাইলে ফোন করেন, কিন্তু সেটিও বেজে যায়।তারপর প্রতিবেশীদের তিনি বিষয়টি জানান।অবশেষে প্রতিবেশী এক যুবক পাঁচিল টপকে ভেতরে ঢুকে সদর দরজা খোলেন।তখন দেখা যায় এই ঘটনা ঘটেছে এই পরিবারে।

দুজনের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে এনআরএসে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু ডাক্তাররা তাদের মৃত বলে ঘোষণা করে।জানা গেছে লিকা  একসময় পুরোহিতের কাজ করতেন। 70/ 80 বছর তারা এই এলাকায় রয়েছেন।নির্ঝঞ্ঝাট পরিবার তাদের।বাড়ির অন্য ছেলেরা কানাডায় থাকে।খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন ট্যাংরা থানার পুলিশ এবং ডিসি দেবস্মিতা দাস এবং গোয়েন্দাপ্রধান মুরলীধর শর্মা।তারা এসে দেখেন উঠোনে একটি লোহার বালতি পড়ে রয়েছে এবং দুটি মৃতদেহের মাথা একেবারে থেঁতলে দেওয়া হয়েছে।বাড়ির দরজা ভেতর থেকে বন্ধ।ঘরের কোন জিনিস চুরি যায়নি।তাহলে আততায়ী কিভাবে বাড়িতে ঢুকলো?সে কি পাঁচিল টপকে ঢুকে ছিল নাকি পূর্ব পরিচিত হওয়ার কারণে বাড়ির কেউ তাকে দরজা খুলে দিয়েছিল এই নিয়ে ধন্দে আছে পুলিশ।এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং পরিবারের সকলের মোবাইলে কল লিস্ট চেক করা হচ্ছে।

No comments:

Post a comment