Trending

Wednesday, 21 August 2019

গ্রেফতারির মুখে বেপাত্তা চিদাম্বারাম




আরো বেশি বিপাকে জড়িয়ে পড়লে প্রাক্তন মন্ত্রী চিদাম্বারাম।আই এন এক্স মিডিয়া মামলা নিয়ে তিনি বেশ চিন্তিত।কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা মঙ্গলবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ তার দিল্লির জোড়বাগ এলাকার বাড়িতে নোটিশ ঝুলিয়ে দেয়।তাকি দু'ঘণ্টার মধ্যে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।চিদাম্বারাম সিবিআই আধিকারিকদের নির্দেশ মানতে পারেননি। ডেড লাইন পেরিয়ে গেলেও সিবিআই দপ্তরে তাকে দেখা যায়নি।

দিল্লি হাইকোর্ট অন্তর্বর্তীকালীন জামিন খারিজ করে দেবার পর পরই সিবিআই  আধিকারিকরা প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের বাড়িতে হানা দেয়।কিন্তু তাকে সেখানে না পেয়ে তারা খালি হাতে ফিরে যান।

পি চিদাম্বরম নিজের গ্রেপ্তারি আটকানোর জন্য সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন।তিনি কংগ্রেস নেতা তথা আইনজীবী কপিল সিব্বলের সঙ্গে দেখা করেন।তারপরই সিব্বল, সালমান খুরশীদ, অভিষেক মনু একযোগে সুপ্রিম কোর্টে "স্পেশাল লিভ পিটিশন" করেন।আজ বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এ এই মামলার শুনানি হবে।

দিল্লি হাইকোর্ট তার অন্তর্বর্তীকালীন জামিন খারিজ করে দেওয়ায় সিবিআই কর্তারা তাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার প্রয়াস চালায়।সি বি আই, ইডি চিদাম্বারাম এর বাড়িতে উপস্থিত হওয়ায় স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে তারা চিদাম্বারাম কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিজেদের হেফাজতে চায়।কিন্তু এখনো কেউ তার নাগাল পায়নি।দুই সংস্থার আধিকারিক এর মতেই চিদাম্বারাম উধাও,আর  তার মোবাইলটি ও বন্ধ।

সিবিআই 2017 সালে আই এন এক্স মিডিয়া মামলায় চিদাম্বারাম এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।আবার ইডি ও 2018 সালে আর্থিক অসংগতির কারণে তার বিরুদ্ধে মামলা করে। অনেকবার তাকে গ্রেপ্তার করার জন্য আর্জি জানিয়েছে সি বি আই।কিন্তু প্রত্যেকবারই তিনি রক্ষাকবচের সুরক্ষায় বেরিয়ে গেছেন।এই কারণেই গত দেড় বছর ধরে তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি সিবিআই বা ইডি।

No comments:

Post a comment