Trending

Saturday, 7 September 2019

গলব্লাডার স্টোন আটকাতে দূর্দান্ত ঘরোয়া উপায়ে বললেন চিকিৎসক


গলব্লাডার স্টোন নিয়ে আমরা অনেকেই চিন্তিত থাকি।অনেক সময় পেটে হালকা ব্যথা অনুভব হয়।কিন্তু সেটিকে প্রথমে গ্যাসের ব্যথা ভেবে অনেকেই এড়িয়ে যান।পরে যখন আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে ধরা পড়ে যে একটি বা একাধিক ছোট ছোট স্টোন তৈরি হয়েছে গলব্লাডারে, ততদিনে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যায়।বাধ্য হয় তখন গলব্লাডার কেটে বাদ দিতে হয়। 

গলব্লাডার স্টোন হওয়ার কোন নির্দিষ্ট কারণ নেই।বিভিন্ন কারণেই এটি হতে পারে।আজকাল অনিয়মিত জীবন-যাপনে গলব্লাডার স্টোন হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে।এই অবস্থায় একবার ধরা পড়লে তা ওষুধ দিয়ে গলিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা অনেক সময় আর থাকেনা।সেটি বড় হয়ে গেলে তা শরীরের পক্ষে মারাত্মক হতে পারে।তখন গোটা গলব্লাডার থেকে কেটে বাদ দেওয়াটাই শ্রেয় বলে মনে করেন ডাক্তারেরা। 

এর ফলে শরীরে চিরস্থায়ী একটা খামতি তৈরি হয়।শরীরের একটি অংশ শরীর থেকে বাদ দেওয়ার প্রভাব সারা জীবন ধরে রোগীকে বহন করতে হয়।এই গলব্লাডার স্টোন আটকানোর একটি সুন্দর ঘরোয়া উপায় বের করেছেন চিকিৎসকরা।

 তারা জানিয়েছেন কোন মানুষ যদি দিনে 6 কাপ কফি খান তাহলে তার গলব্লাডার স্টোন হওয়ার সম্ভাবনা 23 শতাংশ কমে যায়।আর যদি 7 কাপ কফি খান তাহলে স্টোন হওয়ার সম্ভাবনা 26 শতাংশ কমে যায়।অর্থাৎ কফি  এমন একটি পানীয় যা আমাদের দেশের গলব্লাডার স্টোন হওয়াকে প্রতিরোধ করে।তাই চিকিৎসকের পরামর্শ দিচ্ছেন দৈনিক কফি খাওয়ার অভ্যেস আটকাতে পারে গলব্লাডার স্টোন হওয়ার সম্ভাবনাকে। 

No comments:

Post a Comment