Trending

Wednesday, 2 October 2019

পাঁচ টাকার বিনিময়ে আটোগ্রাফ


১৯৩৪ সালের মে মাস।সে সময়ে বিহারের ভাগলপুরে ভূমিকম্পে বড়সড় ক্ষতি হয়।তখনকার কংগ্রেস কর্মীরা সেখানে উদ্ধারকাজে হাত লাগান।উদ্ধারকাজ কেমন চলছে তা দেখতে সেখানে হাজির হন মহাত্মা গান্ধী।সেখানে স্বাধীনতা সংগ্রামী তথা ব্যারিস্টার দীপনারায়ণ সিংয়ের বাড়িতে ওঠেন তিনি।

মহাত্মা গান্ধী এসেছেন।তাই তাঁকে দেখতে ভিড় উপচে পড়ে।সকলেই গান্ধীজিকে একঝলক দেখতে চান। তাঁর অটোগ্রাফ নিতে চান।গান্ধীজি অটোগ্রাফ দিতে রাজি হন।তবে তাঁর শর্ত ছিল অটোগ্রাফ প্রতি তাঁকে ৫ টাকা করে দিতে হবে।তবেই মিলবে অটোগ্রাফ। গান্ধীজি ৫ টাকার বিনিময়ে সেই অটোগ্রাফ বিলিয়েছিলেন সেদিন।আর এই ৫ টাকা করে যত টাকা সংগ্রহ হয়েছিল তা দিয়েছিলেন ভূমিকম্পের ত্রাণে।দীপনারায়ণ সিংয়ের যে বাড়িতে সে সময় গান্ধীজি উঠেছিলেন সেই বাড়ি স্বাধীনতার পর সরকারকে দান করেন দীপনারায়ণ।গান্ধীজি ওই বাড়িতে থাকায় সেই বাড়িটিকে সরকার হেরিটেজ ঘোষণা করে।ওই বাড়িটিকে পরে ভাগলপুরের জেলাশাসকের বাসভবন করে দেওয়া হয়।

No comments:

Post a Comment